বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৫ August ২০১৬

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪১তম শাহদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল।


প্রকাশন তারিখ : 2016-08-15

বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের মহান নেতা, বাঙ্গালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারবর্গের ৪১তম শাহদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে ১৫ আগস্ট ২০১৬ তারিখ সকাল ১১-০০টায় হোটেল অবকাশ, বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের ব্যাংকুয়েট হলে আলোচনা সভা ও দোয়ামাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব রাশেদ খান মেনন, এম.পি। বিশেষ অতিথি হিসেবে আসন অলংকৃত করেন মাননীয় সংসদ সদস্য বেগম রওশন আরা বেগম, এম.পি। উপস্থিত ছিলেন জনাব এস. এম. গোলাম ফারুক, সচিব, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন সরকারের অতিরিক্ত সচিব ও বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন এর চেয়ারম্যান জনাব অপরূপ চৌধুরী, পিএইচ.ডি।

আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন এর অতিরিক্ত সচিব ও পরিচালক (অর্থ ও প্রশাসন) জনাব মুহাম্মদ মউদুদউর রশীদ সফদার, ড. মো: নাসির উদ্দিন, যুগ্ম-সচিব ও পরিচালক (বাণিজ্যিক) ও জনাব মোঃ শাহাদাৎ হোসেন, যুগ্ম-সচিব ও পরিচালক (পরিকল্পনা) এবং একই মন্ত্রণালয়ের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ। সঞ্চালনার দায়িত্বে ছিলেন এনএইচটিটিআই এর ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ জনাব পারভেজ আহমেদ চৌধুরী। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ব্যক্তিবর্গ এবং বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারীগন উপস্থিত ছিলেন। আয়োজিত অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুর জীবনী নিয়ে আলোচনা এবং বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারবর্গের আত্মার শান্তি কামনা করা হয়।

মাননীয় মন্ত্রী তাঁর বক্তব্যে সর্বপ্রথম জাতির পিতা ও তাঁর পরিবারবর্গের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।  তিনি বলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর অবিসংবাদিত নেতৃত্বে আজকের এই বাংলাদেশ। প্রগতিবাদী ও অসাম্প্রদায়িক সমাজ বিনির্মাণের জন্য বঙ্গবন্ধু অকুতোভয় সংগ্রাম করে গেছেন। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে বাঙ্গালির জাতি এদেশের সংস্কৃতি, কৃষ্ঠি, সভ্যতা ও ঐতিহ্য নিয়ে যখন বাংলাদেশকে পুণগঠনে মনোনিবেশ করছিলেন তখনই এদেশের বিপথগামী কিছু সেনা সদস্য বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারবর্গের সদস্যগণকে নির্মমভাবে হত্যা করে। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুসহ সকল হত্যাকারীদের বিচার করাসহ এদেশ থেকে সকল অপশক্তি এবং উগ্রবাদীয় গোষ্ঠীদের আইনের মাধ্যমে দমন করে একটি সুন্দর ও সুশৃক্ষল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করার অভিমত ব্যক্ত করেন। মন্ত্রী মহোদয় বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন কর্তৃক বঙ্গবন্ধুর জীবনী নিয়ে রচনা প্রতিযোগিতা আয়োজনের প্রশংসা করেন এবং বিজয়ী প্রতিযোগিদের মধ্যে পুরস্কার স্বরূপ বিভিন্ন উপহারসামগ্রী, প্রাইজবন্ড ও ক্রেস্ট বিতরণ করেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে জনাব এস. এম. গোলাম ফারুক, সচিব, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়, জাতির পিতা ও তাঁর পরিবারবর্গের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কমনা করেন। তিনি তাঁর বক্তব্যে পর্যটন শিল্পসহ বাংলাদেশের প্রতিটি ক্ষেত্রে বঙ্গবন্ধুর অবদানের কথা সবাইকে স্মরণ করিয়ে দেন।

অনুষ্ঠানের সভাপতি জনাব অপরূপ চৌধুরী, পিএইচ.ডি তাঁর বক্তব্যের শুরুতে জাতির পিতা ও তাঁর পরিবারবর্গের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেন। তিনি বলেন বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর নিজের হাতে তৈরী প্রতিষ্ঠান। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার প্রেক্ষিতে ভিজিট বাংলাদেশ- ২০১৬ উপলক্ষ্যে বর্তমানে বাংলাদেশের পর্যটন শিল্প বিশ্বব্যাপী পরিচিতি লাভ করেছে। 

সভায় বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের জনাব মুহাম্মদ মউদুদউর রশীদ সফদার, অতিরিক্ত সচিব ও পরিচালক (অর্থ ও প্রশাসন) আজকের এই দিনটিকে গভীর ভাবে স্মরণ করেন এবং আগত বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ, মিডিয়ার প্রতিনিধিবৃন্দসহ অত্র সংস্থার সকল শ্রেণীর কর্মকর্তা/কর্মচারীদের অনুষ্ঠানের অংশগ্রহণের জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।


Share with :

Facebook Facebook